৪৩ জন যাত্রী-সহ তানজানিয়ার ভিক্টোরিয়া হ্রদে ভেঙে পড়ল বিমান

174

প্রায় ৪৩ জন যাত্রী-সহ তানজানিয়ার ভিক্টোরিয়া হ্রদের উপর ভেঙে পড় বিমান। রবিবার এমনই ভয়াবহ দুর্ঘটনার সাক্ষী থাকল তানজানিয়া। ঘটনায় এখনও নিখোঁজ বহু যাত্রী। সূত্রের খবর বিমানটি ভেঙে পড়ার পরই জলে ডুবে যায়। কেবলমাত্র বিমানের লেজের অংশটিকে জলে ভাসতে দেখা যায়। যাত্রীদের মধ্যে ইতিমধ্যেই উদ্ধার করা হয়েছে ২৬ জনকে। আহতদের নিকটবর্তী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলেও জানা যাচ্ছে।

রবিবার আফ্রিকার সবচেয়ে বড় হ্রদের উপর ভেঙে পড়ল এক যাত্রীবাহী বিমান। রবিবার ভোরে তানজানিয়ার রাজধানী শহর থেকে উড়ান শুরু করেছিল এই বিমান। খারাপ আবহাওয়ার জেরে অবরতণের ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়তে হয়েছিল বিমানটিকে। কিন্তুই মাঝপথে বিপুল ঝড় বৃষ্টির মধ্যে পড়ে গন্তব্যের আগেই অবতরণের চেষ্টা করেছিল বিমানটি। তখনই ঘটে এই দুর্ঘটনা।

সূত্র মারফত জানা যাচ্ছে বিমানটিতে দু’জন পাইলট ও দু’জন কেবিন ক্রু-সহ মোট ৪৩ জন ছিল। দুর্ঘটনার জেরে হতাহতের এখনও কোনও খবর মেলেনি। তবে বিমানের নীচের অংশ জলের তলায় আটকে থাকায় আটকে রয়েছেন বহু যাত্রী। ইতিমধ্যে উদ্ধারকাজ শুরু করেছে উদ্ধারকারী দল। তবে এখন ঠিক কতজন আটকে রয়েছে সে বিষয় কিছু জানা যায়নি।

সংবাদ সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, বুকাবু বিমানবন্দরের কাছে ভেঙে পড়ে তানজানিয়ার সবচেয়ে বড় বেসরকারি বিমান সংস্থা ‘প্রিসিশন এয়ার’-এর বিমানটি। ভেঙে পড়ার সঙ্গে সঙ্গেই জলের তলায় ডুবে যায় বিমাটি। কেবলমাত্র বিমানের লেজের অংশটা জলের উপর দৃশ্যমান অবস্থায় ছিল। ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেছেন তানজানিয়ার প্রেসিডেন্ট সামিয়া সুলুহু হাসান। তিনি জানিয়েছেন যত দ্রুত সম্ভব উদ্ধারকাজ চলছে। ঘটনা প্রসঙ্গে প্রেসিডেন্ট সামিয়া সুলুহু হাসান বললেন,’ধৈর্য্য ধরুন, যাত্রীদের দ্রুত উদ্ধার করার চেষ্টা চলছে। ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করি সকলে যেন সুস্থভাবে ফিরে আসেন।