উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে শক্তিশালী গ্রেনেডের সন্ধান! আতঙ্কে রোহিঙ্গারা

69

গ্রেনেডের সন্ধান পেয়েছে এ খবর ছড়িয়ে পড়লে ক্যাম্পজুড়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে ৮ এপিবিএনের সদস্যরা বসতঘরটি ঘিরে রেখেছে। শুক্রবার দুপুর দেড়টার দিকে গ্রেনেডের সন্ধান পায় আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। পরে সেনাবাহিনীর উচ্চ পর্যায়ের বিশেষজ্ঞ দলকে ডাকা হয়।

এর আগে একদল দুর্বৃত্তের ছোড়া গুলিতে আহত হয়েছেন বসতঘরের মালিক মোহাম্মদ নবী। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। আহত মোহাম্মদ নবী ক্যাম্প-৮ এর বি/৩৯ ব্লকের বাসিন্দা মোহাম্মদ কাশিমের ছেলে।

গ্রেনেড পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে ৮ এপিবিএনের সিও অতিরিক্ত ডিআইজি মোহাম্মদ আমির জাফর বলেন, আপাতত আমরা বসতঘরটি ঘিরে রেখেছি। সরকারের উচ্চ পর্যায়ের সঙ্গে কথা বলে সেনাবাহিনীর বিশেষজ্ঞ বিস্ফোরক দলকে ডাকা হয়েছে। তবে এ নিয়ে বিস্তারিত কথা বলতে রাজি হননি এপিবিএনর দায়িত্বশীল এই কর্মকর্তা।

রোহিঙ্গাদের একটি সূত্র জানিয়েছে, বাংলাদেশ সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে আন্তর্জাতিক বেশ কিছু চক্র রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের ব্যবহার করছে। বাংলাদেশের আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বড় ধরনের সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটতে পারে বলেও আশঙ্কা করছেন তারা।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জালাল উদ্দীন ভূঁইয়া বলেন, গ্রেনেড কীভাবে, কোথা থেকে আসল তা নিশ্চিত করা যাচ্ছে না। আহত মোহাম্মদ নবী আমাদের হেফাজতে রয়েছেন। সুস্থ হলে তাকে জিজ্ঞাসবাদ করার পর ও অনুসন্ধান শেষে বিস্তারিত জানানো হবে।