রাশিয়ার গ্যাস পাইপলাইনে আরও এক ছিদ্র, জোরালো হচ্ছে নাশকতার শঙ্কা

121

সাগরের তলদেশ দিয়ে রাশিয়া থেকে জার্মানিতে যাওয়া গ্যাসের পাইপলাইন নর্ড স্ট্রিম ২-তে  একটি ছিদ্র শনাক্ত হয়েছে। সুইডেনের কোস্টগার্ড আজ বৃহস্পতিবার এ তথ্য জানিয়েছে। এ নিয়ে নর্ড স্ট্রিম-১ ও নর্ড স্ট্রিম–২–তে মোট চারটি ছিদ্র শনাক্ত করা হলো। আজ চতুর্থ ছিদ্রটি শনাক্ত করার কথা জানানো হলেও বাকি তিনটি ছিদ্রের কথা নিশ্চিত করা হয়েছে কয়েক দিন আগে। একের পর এক ছিদ্র শনাক্ত হওয়ায় নাশকতার বলে মনে করছে

সুইডিস কোস্ট গার্ডের এক কর্মকর্তা বলেন, সুইডেনের মধ্যে দুটি ছিদ্র, যার একটি নর্ড স্ট্রিম-১-এ, অন্যটি নর্ড স্ট্রিম ২–তে। এ দুটি ছিদ্রস্থলের দূরত্ব প্রায় এক নটিক্যাল মাইল (১ দশমিক ৮ কিলোমিটার)। আর ডেনমার্কের জলসীমায়ও পাইপলাইন দুটিতে দুটি ছিদ্র শনাক্ত হয়েছে।

ডেনমার্কের সামরিক বাহিনীর তোলা ছবিতে দেখা যায়, সমুদ্রের তলদেশে পানির ওপরে বড় এলাকাজুড়ে পানি বুদ্‌বুদ উঠছে।

এসব বুদ্‌বুদের আয়তন ২০০ থেকে ১ হাজার মিটার। পোল্যান্ডের উত্তরে সুইডেন ও ডেনমার্কের অর্থনৈতিক অঞ্চলে তিনটি ছিদ্র থেকে এমন বুদ্‌বুদ উঠেছে।

ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর রাশিয়ার সঙ্গে ইউরোপের ভূরাজনৈতিক উত্তেজনার কেন্দ্রে রয়েছে গ্যাস সরবরাহ। রাশিয়া নর্ড স্ট্রিম-১ ও নর্ড স্ট্রিম-২—এই দুটি পাইপলাইন দিয়ে ইউরোপে গ্যাস সরবরাহ করে। ইউক্রেনে হামলার জন্য ইউরোপসহ পশ্চিমা দেশগুলো মস্কোর ওপর একের পর এক নিষেধাজ্ঞা দেয়। জবাবে কারিগরি ত্রুটির কথা বলে গত কয়েক মাসে ইউরোপে গ্যাস সরবরাহ কমিয়ে দিয়েছে রাশিয়া।

নর্ড স্ট্রিম-১ নামের পাইপলাইনে ছিদ্র হওয়ার কথা চলতি মাসের শুরুর দিকে জানিয়েছিল রাশিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত গ্যাস সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান গাজপ্রম। এ পাইপলাইন দিয়ে জার্মানিতে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে বলেও জানায় তারা।

নর্ড স্ট্রিম-১ পাইপলাইনের আয়তন ১ হাজার ২০০ কিলোমিটার। রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গ উপকূল থেকে সমুদ্রের তলদেশ দিয়ে জার্মানির উত্তর-পূর্বাঞ্চলে গেছে এই গ্যাসলাইন। নর্ড স্ট্রিম-২ একই এলাকা দিয়ে যাওয়া আরেকটি পাইপলাইন।

সুইডিশ কোস্ট গার্ড জানিয়েছে, গত মঙ্গলবার থেকে তারা গ্যাসলাইনে ছিদ্র হওয়ার বিষয়টি নিয়ে সতর্ক অবস্থানে আছে। তবে আগে কেন এটি জানা যায়নি, সেই ব্যাখ্যা তারা তাৎক্ষণিকভাবে বলতে পারেনি।
ডেনমার্ক ইতিমধ্যে দ্বীপটির দক্ষিণ–পূর্বে নর্ড স্ট্রিম-২ পাইপলাইনে একটি ছিদ্র ও উত্তর–পূর্বে নর্ড স্ট্রিম-১–এ একটি ছিদ্র থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। এ ছিদ্রের কারণে বর্নহোম দ্বীপের কাছে সমুদ্রের পানির উপরিভাগে কয়েক শ মিটার এলাকাজুড়ে বুদ্‌বুদ উঠছে। ফলে তাৎক্ষণিকভাবে গ্যাসলাইনগুলো পরিদর্শন করা অসম্ভব হয়ে ওঠে।

সুইডিশ কোস্ট গার্ডের একটি তল্লাশি ও উদ্ধারকারী যান এলাকাটিতে টহল দিচ্ছে। সংস্থাটি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ক্রুরা জানিয়েছেন, তলদেশে যে অবিরত গ্যাস বের হচ্ছে, তা পানির উপরিভাগে দৃশ্যমান।

পাইপলাইনে এই ছিদ্রের জন্য নাশকতাকে দায়ী করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে রাশিয়াকে দায়ী করে এটিকে ‘সন্ত্রাসী হামলা’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছে ইউক্রেন। এই পাইপলাইনগুলো স্থায়ীভাবেও বন্ধ হয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের অভিযোগ, এসব বিস্ফোরণের পেছনে রাশিয়ার হাত আছে। তবে রাশিয়া এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে। মস্কো উল্টো বলছে, পাইপলাইনের ক্ষতি করা হবে ‘হাস্যকর’। জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ এ বিষয়ে আগামীকাল শুক্রবার আলোচনায় বসবে।